Wednesday, April 17, 2019

সেদিন ভালবাসা দিয়ে কিনতে চাইলাম কিন্তু অর্থের অভাবে কিনতে পারলাম না ,আজ অর্থ আছে , শুধু ভালোবাসাটাই নেই ...
#অবাক_করা_দুনিয়া_মাইরি

Saturday, March 2, 2019

পুরাতন বৎসরের জীর্ণক্লান্ত রাত্রি 
                        রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর---বলাকা
                     (কলিকাতা, ৯ বৈশাখ, ১৩২৩)

পুরাতন বৎসরের জীর্ণক্লান্ত রাত্রি
          ওই কেটে গেল; ওরে যাত্রী।
     তোমার পথের 'পরে তপ্ত রৌদ্র এনেছে আহ্বান
              রুদ্রের ভৈরব গান।
                  দূর হতে দূরে
          বাজে পথ শীর্ণ তীব্র দীর্ঘতান সুরে,
                  যেন পথহারা
              কোন্‌ বৈরাগীর একতারা।
              ওরে যাত্রী,

     ধূসর পথের ধুলা সেই তোর ধাত্রী;
চলার অঞ্চলে তোরে ঘূর্ণাপাকে বক্ষেতে আবরি
         ধরার বন্ধন হতে নিয়ে যাক হরি
              দিগন্তের পারে দিগন্তরে।
     ঘরের মঙ্গলশঙ্খ নহে তোর তরে,
          নহে রে সন্ধ্যার দীপালোক,
          নহে প্রেয়সীর অশ্রু-চোখ।
পথে পথে অপেক্ষিছে কালবৈশাখীর আশীর্বাদ,
          শ্রাবণরাত্রির বজ্রনাদ।
     পথে পথে কন্টকের অভ্যর্থনা,
     পথে পথে গুপ্তসর্প গুপ্তসর্প গূঢ়ফণা।
          নিন্দা দিবে জয়শঙ্খনাদ
          এই তোর রুদ্রের প্রসাদ।

     ক্ষতি এনে দিবে পদে অমূল্য অদৃশ্য উপহার।
          চেয়েছিলি অমৃতের অধিকার--
     সে তো নহে সুখ, ওরে, সে নহে বিশ্রাম,
          নহে শান্তি, নহে সে আরাম।
          মৃত্যু তোরে দিবে হানা,
          দ্বারে দ্বারে পাবি মানা,
     এই তোর নব বৎসরের আশীর্বাদ,
          এই তোর রুদ্রের প্রসাদ
          ভয় নাই, ভয় নাই, যাত্রী।
     ঘরছাড়া দিকহারা অলক্ষ্মী তোমার বরদাত্রী।

     পুরাতন বৎসরের জীর্ণক্লান্ত রাত্রি
          ওই কেটে গেল, ওরে যাত্রী।
              এসেছে নিষ্ঠুর,
          হোক রে দ্বারের বন্ধ দূর,
          হোক রে মদের পাত্র চুর।
     নাই বুঝি, নাই চিনি, নাই তারে জানি,
          ধরো তার পাণি;
     ধ্বনিয়া উঠুক তব হৃৎকম্পনে তার দীপ্ত বাণী।
          ওরে যাত্রী
     গেছে কেটে, যাক কেটে পুরাতন রাত্রি।










Sunday, December 2, 2018

Sleep or die early (Don’t run after him who tries to avoid you..!)

■ Two-thirds of adults in developed nations fail to obtain the nightly eight hours of sleep recommended by the World Health Organisation.

■ An adult sleeping only 6.75 hours a night would be predicted to live only to their early 60s without medical intervention.


■ A 2013 study reported that men who slept too little had a sperm count 29% lower than those who regularly get a full and restful night’s sleep.

■ If you drive a car when you have had less than five hours’ sleep, you are 4.3 times more likely to be involved in a crash. If you drive having had four hours, you are 11.5 times more likely to be involved in an accident.

■ A hot bath aids sleep not because it makes you warm, but because your dilated blood vessels radiate inner heat, and your core body temperature drops. To successfully initiate sleep, your core temperature needs to drop about 1C.

■ The time taken to reach physical exhaustion by athletes who obtain anything less than eight hours of sleep, and especially less than six hours, drops by 10-30%.

■ There are now more than 100 diagnosed sleep disorders,of which insomnia is the most common.


■ Morning types, who prefer to awake at or around dawn, make up about 40% of the population. Evening types, who prefer to go to bed late and wake up late, account for about 30%. The remaining 30% lie somewhere in between.

Thursday, October 4, 2018

ভালবাসা

-ব্রেকআপ!!! চিৎকার করে উঠল দিয়া!
-মানে?
-মানে বুঝ না?মানে হল তোমার আর আমার রিলেশনের এখানেই শেষ!বাই বাই!
-আচ্ছা|
-আচ্ছা মানে?তুমি কিছু বলবা না?
-আচ্ছা আজকে কি আমরা শোক পালন করব?না মানে যেমন ধর…প্রতিদিন আমরা আইসক্রিম,ঝালমুড়ি,ফুচ-কা খাই..আজকে বরং তা না করে সিগারেট খাই!
-তুমি আমাকে সিগারেট খাওয়াবা!!!
-না মানে…কষ্ট ভুলতে তো মানুষ তা-ই করে!
-তোমার কি মনে হয় আমার কষ্ট লাগবে?মোটেও না!
-ও
রাগে হাতের ব্যাগটা আছাড় মারল দিয়া!
-তুমি একটা ছাগল আর একটা ছাগলের সাথে কোনো মানুষের সম্পর্ক থাকতে পারে না!
কথাটা বলেই বাসার দিকে হাঁটতে লাগল দিয়া|দিয়ার ফেলে যাওয়া ব্যাগটা হাতে নিল আকাশ|ভিতরে একটা মোবাইল আর কিছু টাকা আছে|আকাশ একবার ভাবল দিয়াকে ব্যাগের জন্য ডাক দিবে|কিন্ত পরক্ষণেই চিন্তাটা বাদ দিল|ব্যাগটা হাতে নিয়েই হাঁটা শুরু করল ও|দুটো বাচ্চা মেয়ে রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে দড়িলাফ খেলছিল|ওর হাতে মেয়েদের ব্যাগ দেখে খিলখিল করে হেসে উঠল মেয়ে দুটো|ওদের হাসি দেখে আকাশও হেসে দেয়|তবে এবার আর মেয়ে দুটো হাসে না|হয়ত ওকে পাগল ভাবছে!
-হ্যালো,তুমি আমার মোবাইলসহ ব্যাগ চুরি করলা কেন?
-না,না আমি তা করিনি!তুমি ই তো ব্যাগটা ফেলে আসলে|
-একদম মুখের ওপর কথা বলবা না!কালকে আমার ব্যাগ নিয়ে সোজা ক্যাম্পাসে চলে আসবা|বাই!
ফোনটা কেটে দিল দিয়া!কাঁদছে ও!দুটো কারণে ব্যাগটা ও ইচ্ছে করেই ফেলে এসেছে!প্রথমত,এই ব্যাগের অজুহাতে আবার আকাশের সাথে দেখা করা যাবে!আর দ্বিতীয়ত,আজ-ই আকাশের মেসের ভাড়া দেয়ার শেষ দিন|তাই ব্যাগের টাকাটা রেখে এসেছে যাতে বাধ্য হয়ে ওর টাকাটা দিয়ে মেসের ভাড়াটা মিটাতে পারে আকাশ!এমনিতে সরাসরি দিলে আকাশ তা কোনোদিনই নিত না!তাই বাধ্য হয়েই ঝগড়াটা সৃষ্টি করছিল ও!
আধঘন্টা ধরে বসে আছে দিয়া|কিন্ত আকাশের আসার কোনো নাম নেই!যাওয়ার জন্য উঠে দাঁড়াতেই দৌড়াতে দৌড়াতে সামনে এসে দাঁড়ায় আকাশ!
-সরি!এই নাও তোমার ব্যাগ!আর একটা কথা বলব?
-কি?
-আমি তোমার টাকাগুলো খরচ করে ফেলেছি!
দিয়ার মুখে একটা প্রশান্তির হাসি ফুটে উঠল!কিন্ত মুখে বলল,
-ফাও কথা বলবা না!ব্যাগে কোনো টাকা ছিল না!
-না,না,সত্যি ছিল!তোমার ওই টাকা দিয়েই তো জব্বার চাচাকে একটা কম্বল কিনে দিয়েছি!সরি!প্লিজ কিছু মনে কর না!আসলে হাতে কোনো টাকা ছিল না তাই!তবে এ মাসের টিউশিনির টাকাটা পেলেই দিয়ে দিব!তুমি তো চাচার কথা সবই জানো!তাই
আর কি ..সরি!
ঠোঁট চেপে কান্না আটকে রেখেছে দিয়া!যে মানুষটা নিজেই ঠিকমত চলতে পারে না,যার নিজেরই একটা ভালো শীতের জামা নেই,যে নিজেই সারা বছর কষ্ট করে কাটায়, সেই মানুষটাই কিনা আরেকজনকে সাহায্য করে তার জন্য আমার মাফ চাইছে!কোনোমতে সামলে উঠে বলল ও,
-তোমাকে মেস থেকে বের করে দেইনি??
-না!আরো দুইদিন সময় দিয়েছে|
-বের করে দিলে খুশি হতাম!
-আচ্ছা আজ থেকে কি তোমার ফোন রিসিভ করব?না মানে তুমি ই তো কাল বললে…
-হ্যা আজকে থেকে তুমি আর আমার ফোন রিসিভ করবা না!কিন্ত ফোন ঠিকই দিবা!না দিলে চড় দিয়ে আক্কেল দাঁতসহ সবগুলো দাঁত ফালায়া দিব!
এবার আর কান্না আটকে রাখতে পারল না মেয়েটা!অবাক হয়ে তাকিয়ে রইল আকাশ!আর দশটা সাধারণ গল্পের ছেলেগুলোর মত আকাশও বুঝতে পারছে না মেয়েটা কেন কাঁদছে!শুধু মনে মনে বলছে-“আবার কি করলাম!”

Tuesday, September 25, 2018

রাতের পরী | ভালবাসা

রাতের পরীরা কিভাবে উড়লো, কিভাবে নিষিদ্ধ গলিতে এলো, কেও ভাবেনা। জৈবিক চাহিদা, নিষ্ঠুর বাস্তবতা কিংবা হায়ানাদের ধারালো দাবানলে ওরা ক্ষত বিক্ষত! ওদের অসহায়ত্ব কেউ দেখেনা। বন্দী পাখির মত ওরা ছটফট করে মরে। আমরা ওদের ডানা ভেঙে, খাঁচায় আঁটকে রাখি।

শুকুনীর দল মাতে উল্লাসে। ওরা পিপাসা মিটাতে ব্যস্ত । ওরা রাতের পরীদের কোলে বীজ বপন করে! জুটা আবর্জনা ডালে, আবার ওরাই ওদের “নষ্ট ” খেতাব দেয়।
চারিদিকে ধর্মের বাতাস। চারিদিকে মানবতার হুংকার। মহান ব্যক্তিদের বিশাল বিশাল বানী। ওদের বল,নেবে কি কোনো রাতের পরী কে তোমার ভালবাসার আঙিনায়??? ওরা মুখ ফিরিয়ে নেবে। আহ! মানব স্বত্বা!!! আমি লজ্জিত এমন একটি সমাজের বাসিন্দা আমি, যেখানে রাতের আঁধারে নষ্ট পল্লীতে যাতায়াত বৈধ, নষ্ট পল্লীর কষ্ট গুলো কে হাত দিয়ে ছুঁয়ে যাওয়া অবৈধ!!!

আমি তাদের কথা বলছিনা, যারা শখের বশে রাতের পরী সাঝে। আমি তাদের কথা বলছি,যারা বাস্তবতার কঠিন উত্তাপের স্বীকার, যারা অনাহাড়ে প্রান বাঁচাতে মরিয়া হয়ে উঠে, যাদের অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে, সুশীল সমাজের ভদ্র বেশী শকুন গুলো তাদের কে খুঁবলে খায়, তাদের কে রক্তাক্ত করে নষ্ট পল্লীতে মোহর মেরে, ছুঁড়ে ফেলে আসে।
রাতের আঁধারে নষ্ট পল্লীর কষ্ট গুলো নিয়ে আমরা খেলা করি। দিনের আলোতে তাদের ভালবেসে সমাজের একটা কলংকময় অধ্যায়ের অবসান ঘটাতে আমাদের জাত যায়, আমাদের ধর্ম যায়!! ওদের নষ্ট দেহে ভাঁজে ভাঁজে লাভার উৎপাত ঘটিয়ে প্রশান্তির হাসি ফুটে আমাদের মুখে! ওদের দেহে রচিত গদ্যের পাতায় পাতায় শুঁকিয়ে যাওয়া কষ্ট গুলো ছুঁতে ঘেন্না হয়! বাহ! চমৎকার! আমরা পারিও বটে!!

Monday, June 11, 2018

ভালবাসি তোমায় | ভালবাসা

আজ প্রতিটি ক্ষণ হৃদয়ে যে পরম সত্য অনুভব করলাম- আমি শুধুই তোমার। সে শেষ ঠিকানা আমি পেলাম। কখনই তা মিথ্যা হতে দিওনা, কখনই ছেড়না আর। আজ আমার ভীষণ সুখী হাত দুটো, আর দৃষ্টি ঘুরিও না অদ্ভুত সুন্দর চোখজোড়ার, সেখানে অপলক তাকিয়ে বৃষ্টির সাথে আমিও আনন্দ হয়ে ঝরেছিলাম!
তোমাকে ভালবাসি প্রচণ্ড- এরচেয়ে কোনও সত্য আপাতত আর জানিনা!!
ভালবাসি তোমায়!
আজ শেষ বিকেলের পাহাড় ছুঁয়ে ছুটে আসা দমকা হাওয়ার জড়িয়ে দেয়া মেঘের মতো ছোট্ট একটি ঘটনা আমার সব দ্বিধাকে উড়িয়ে নিয়ে গেলো! বুঝলাম, মহাকাল যে হাস্যকর ক্ষুদ্র সময়কেজীবনবলে আমাকে দান করেছে। সেই জীবনে তুমি- আমার একমাত্র মানুষটি, যার পাঁচটি আঙ্গুলের শরণার্থী আমার পাঁচটি আঙ্গুল, যার বুকের পাঁজরে লেগে থাকা ঘামের গন্ধ আমার ঘ্রাণশক্তির একমাত্র গন্তব্য। যার এলোমেলো চুলে আমি- হারিয়ে যাবো। আর আমি হারিয়ে যাবো ভালবাসতে বাসতে!!!

Monday, April 2, 2018

নিরাপত্তা | ভালবাসা

বিড়ালের সামনে মাছ রেখে তারপর বলে-এই বিড়াল মাছ কিন্তু খাবি না !!
তার মানে মেয়েরা (__?__) Open করে হাটবে আর ছেলেদের বলবে দেখবি না।
শেয়ালে ভরা জঙ্গলে মুরগি কে ছেড়ে দিয়ে যদি বলে শেয়াল মুরগি না খেয়ে নিজের মানসিকতা বদলাতে !!
সেটা কি আদৌ সম্ভব ?? কখনো সম্ভব না। কারণ শেয়ালকে বানানো হয়েছে মুরগির প্রতি দূর্বলতা দিয়ে। ঠিক মানুষের উত্তেজনা টা কেও বানানো হয়েছে বিপরীত লিঙ্গের বিশেষ কিছু অঙ্গের প্রতি দূর্বতলতা রেখে।
এখন আপনি যদি মানুষের সেই সব বিশেষ অঙ্গ রাস্তায় দেখিয়ে বেড়ান আর বলেন যে আপনার উত্তেজনা জেগে উঠতে পারবে না,নিজের মানসিকতা বদলান।
সেটা কি সম্ভব ??
কখনো না !!
কেনোনা মানুষকে সৃষ্টি করা হয়েছেই এমন ভাবে। আর মানুষের বিশেষ অঙ্গ গুলা দেখলেই উত্তেজনা জেগে উঠবে বলেই তো বলা হয়েছে মানুষ কাপড় পড়তে আর পর্দা
করতে। কিন্তু আপনি সেটা না করে রাস্তায় খোলা মেলা চলবেন আর বলবেন আপনার মানসিকতা বদলান !!
এটা পাগলের প্রলাপ ছাড়া কিছুই না।
জৈনক মানবতাবাদীরা বলে থাকে নারীকে ভোগ্য পণ্য ভাবিয়েন না !! আপনারা মানসিকতা বদলান। মেয়েদের মেয়ে নয়, মানুষ ভাবুন।
এগুলা শুনলে আমার চরম হাসি পাই।আমি বলি নারী দামী জিনিস। তাদের ইজ্জত অমূল্য। আর এ দামী ও অমূল্য জিনিসটা কে চোরের হাত থেকে বাঁচাতে দরকার পর্যাপ্ত
নিরাপত্তা ব্যবস্থা। আর সে নিরাপত্তা
নিশ্চিত করে পর্দা।
গরুর হাটে গিয়ে গরুর লাথি খেয়ে যেমন
প্রতিবাদ করার থাকেনা !! একগাদা উশৃঙ্খল পুরুষের মাঝখানে গিয়ে শ্লীলতাহানির পরেও তেমনি কোনো নারীর প্রতিবাদ করা চলেনা।
মনে রাখবেন, পর্দা মানেই পরাধীনতা নয়।
পর্দা মানে নিরাপত্তা।

সেদিন ভালবাসা দিয়ে কিনতে চাইলাম কিন্তু অর্থের অভাবে কিনতে পারলাম না ,আজ অর্থ আছে , শুধু ভালোবাসাটাই নেই ... # অবাক_করা_দুনিয়া_মাইরি